Wednesday, July 29, 2020

গরিবদের জন্য এফডিসিতে ৫টি গরু কুরবানী দিচ্ছেন পরীমনি

Be the first to comment!
পরীমনি এবার পাঁচটি গরু কুরবানী দিচ্ছেন এফডিসির মধ্যে। গতবার পরীমনি চারটি গরু কুরবানী দিয়েছিলেন। ক'রোনার এই মহামারীর সময়, শুধু বাংলাদেশেই নয়, পুরো পৃথিবীতে এমনও লাখ লাখ মানুষ রয়েছেন যারা কোরবানি দিতে পারবেন না অথচ গত বছর কোরবানি দিয়েছিলেন।

এফডিসির মধ্যে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র অঙ্গনের বড় বড় নায়ক নায়িকারা প্রতি বছরই কোরবানি দিয়ে থাকেন। তার একটা উদ্দেশ্য হল এফডিসির মধ্যে গরিব ও অর্থনৈতিক ভাবে অস্বচ্ছল অনেক পরিবার রয়েছেন যারা এফডিসি নির্ভর। এফডিসিতে কাজ থাকলে তাদের পেট চলে না থাকলে পেট চলে না এমন অনেক কলাকুশলী রয়েছেন এফডিসির মধ্যে।

ঠিক ঈদের কথা মাথায় রেখে এবার একটি গরু বেশি কোরবানি করছেন বাংলাদেশের খুব জনপ্রিয় নায়িকা পরীমনি। পরীমনির এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন চলচ্চিত্র অঙ্গনে অনেক শিল্পী কলাকুশলী নায়ক নায়িকারা। যেখানে গতবার চারটি গরু কুরবানী দিয়েছিলেন, কর্নার সময় অনেক কলাকুশলী এ বছর কোরবানি দিতে পারবেন না। তাই তাদের মাংস খাওয়ার উদ্দেশ্যে এবং নিজের ছোয়াবের উদ্দেশ্যে পাঁচটি গরু কোরবানি দিচ্ছেন জনপ্রিয় এই নায়িকা পরীমনি।

এছাড়াও বিভিন্ন মাধ্যমে শোনা যাচ্ছে বাংলাদেশের আরেক জনপ্রিয় নায়ক কিং খান শাকিব খান তিনিও কোরবানি দিচ্ছেন এফডিসিতে বেশ কয়েকটা গরু। পাশাপাশি তার একসময়ের হিট নায়িকা ও স্ত্রী অপু বিশ্বাস তিনিও কোরবানি করছেন বড় বড় বেশ কয়েকটি খাসি। এমনটাই শোনা যাচ্ছে অনলাইন মাধ্যমগুলোতে। তবে এর আগে শাকিব খান বাসায় নিজের জন্য গরু কোরবানি করেছিলেন এবং অপু বিশ্বাস এর পক্ষ থেকে বিশাল আকৃতির একটি খাসি কুরবানী করেছিলেন। সেটা অবশ্যই শাকিব খানের স্ত্রী থাকাকালীন সময়ে।

এবার দেখা যাক শাকিব খান অপু বিশ্বাস সহ আরো বড় বড় নায়ক নায়িকারা যারা আছেন তারা এফডিসিতে কে কয়টা গরু কোরবানি দেন সোহাব এবং গরিব-দুঃখীদের মাঝে মাংস বিলিয়ে দেয়ার জন্য এটাই এখন দেখার বিষয়।

এদিকে জনপ্রিয় নায়িকা পরীমনি তিনি বলেন, করোনার এই সময়ে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এফডিসিতে গরু কোরবানি করা হবে এবং আমি নিজে দাঁড়িয়ে থেকে অসচ্ছল ও যারা কুরবানী দিতে পারবেন না তাদের মাঝে মাংস ভাগ করে দেয়া হবে। এদিকে চলচ্চিত্রবিষয়ক নেতানেত্রীরা বলছেন আসলে পরিমাণে যে কাজটা করছেন সেটা অবশ্যই মানবিক আর এভাবে আমাদের চলচ্চিত্র অঙ্গনের আরও বড় বড় অভিনেতা-অভিনেত্রীরা আছেন তাদের এগিয়ে আসা খুব জরুরী। শুধু কুরবানী নয় অনেক অসচ্ছল পরিবারের কে সাহায্য। যদি আমরা একে অপরের প্রতি মানবিক না হয় তাহলে দেখা যাবে একসময় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র এর অবস্থা খুবই খারাপ হয়ে গেছে ঠিক এমনটাই বলছেন চলচ্চিত্র বিষয়ক নেতা-নেত্রীরা।

তাই মানবিক কারণে হলেও শুধু চলচিত্রে নয় দেশের বিভিন্ন জায়গায় এবছর তুলনামূলক বহু মানুষ কম কোরবানি দিবেন যা গতবারের চেয়ে অনেক কম হবে বলে ধারণা করছেন এই সংশ্লিষ্টরা। তাই মানবিক কারণে হলেও যার যতটুকু সামর্থ্য আছে সেখান থেকে গরীব-দুঃখীদের জন্য এবং সওয়াব পাওয়ার জন্য কুরবানী করে গরিব দুঃখীদের মাঝে মাংস বিলিয়ে দেওয়ার জন্য বলছেন অনেক মানবিক উন্নয়নের নেতাকর্মীরা।
  • 0Blogger Comment
  • Facebook Comment

Post a Comment