Friday, July 31, 2020

রাম মন্দিরের প্রধান পুরোহিত ও ১৫ পুলিশ ক'রোনা আ'ক্রান্ত

Be the first to comment!
বাবরি মসজিদ রাম মন্দির এটা নিয়ে পুরো বিশ্ব জুড়ে একটা বড় বিতর্ক রয়ে গেছে তবুও হাইকোর্টের রায় হয়েছে অযোধ্যায় সেখানে তৈরি হবে রাম মন্দির। রাম মন্দিরের কাজ শুরু হবার আগে হিন্দু সনাতন ধর্ম অনুযায়ী সর্বপ্রথম আগামী আগস্ট মাসের ৩ তারিখে শুরু হবে ভূমি পুজো। এরপর একই মাসের ৪ তারিখে শুরু হবে রামের পূজা। যদিও আগস্ট মাসের ৫ তারিখে ভূমি পুজোর মূল ফাংশনটা হবে। এরপর শুরু হবে রাম মন্দির এর এর থেকে শুরু করে পিলার তৈরীর কাজ। যাকে বলা হয় বিল্ডিং এর কাজ।

কিন্তু সমস্যা রাম মন্দিরের প্রধান পুরোহিত কে নিয়ে। রাম মন্দিরের প্রধান পুরোহিত প্রদীপ দাস ইতিমধ্যেই ক'রোনায় পজেটিভ ধরা পড়েছে।

শুধু কি তাই রাম মন্দিরে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ভারতীয় পুলিশের ১৫ জন নিরাপত্তাকর্মী ইতোমধ্যে ক'রোনা পজেটিভ ধরা পড়েছে। ভারতে গতকাল করো না ধরা পড়েছে প্রায় ৫৫ হাজার ব্যক্তি। প্রায় বর্তমানে গড়ে ভারতে প্রতিদিন ৫০ হাজারের মত করো না সনাক্ত হচ্ছেন। এদিকে অযোধ্যায় রাম মন্দিরের কাজের প্রস্তুতি দেখতে গিয়েছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। পুজো দিয়েছেন সেখানে রামলালা। সেখানে পুরোহিত ছিলেন প্রদীপ দাস। প্রদীপ দাসের করো না ধরা পড়ার পর রীতিমতো আরেকবার টেনশনে পড়ে গিয়েছিলেন যোগী আদিত্যনাথ।

তারপর তিনি ক'রোনা পরীক্ষা করে দেখেন তিনি নেগেটিভ। এছাড়াও রাম মন্দিরের প্রধান পুরোহিত প্রদীপ দাস করো না ধরা পড়ার পর তাকে আইসোলেশন এ পাঠানো হয়েছে। রাম মন্দিরে পাশে আগস্টের পুজোর দিনে উপস্থিত থাকতে পারবে না ৬৫ বছর বয়সের ঊর্ধ্বের মানুষেরা। পাশাপাশি ১০ বছরের নিচে শিশুরা সেখানে যেতে পারবেন না এছাড়াও অসুস্থ কোন মানুষ রাম মন্দিরের অনুষ্ঠানে যেতে পারবেন না। এছাড়াও গর্ভবতীরা সেখানে উপস্থিত থাকতে পারবে না।  কিন্তু সমস্যা হচ্ছে অন্য জায়গায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ৬৯ বছর বয়স তাহলে কি নরেন্দ্র মোদী সেখানে উপস্থিত থাকতে পারবেন না!

এছাড়াও ভারতের বিজেপি দলে রয়েছেন অনেক প্রবীণ নেতারা যাদের বয়স রয়েছে ৮৮ বছর পর্যন্ত তাহলে কি তারাও সেখানে উপস্থিত থাকতে পারবে না! করোনা নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক একটা স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর এসওপি ঘোষণা করেছে। সেই এসওপিতে বলা হয়েছে, ৬৫ বছরের বেশি বয়সের ব্যক্তি, যাঁদের অন্য গুরুতর অসুখ আছে, গর্ভবতী মহিলা এবং ১০ বছরের কম বয়সী বাচ্চারা বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। ধর্মীয় বিষয় যারা সংগঠন করছেন, তাঁদেরও এই পরামর্শ মাথায় রাখার কথা বলা হয়েছে। আনলক ৩-এর নীতি নির্দেশিকা সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানেও একই পরামর্শ বহাল রাখার পক্ষ রয়েছে। ইতোমধ্যে এই ধরনের প্রশ্ন তুলে বসেছেন সে দেশেরই সনাতন ধর্মের অনেক মানুষ জন। তাহলে কি হবে?

এদিকে ভূমি পুজা উপস্থিত থাকবেন এমন ব্যক্তির নাম প্রকাশ করা হয়েছে যাদের মধ্যে নিচের লোকজন রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বয়স ৬৯ বছর। লালকৃষ্ণ আডবাণী আর কয়েক মাস পরে ৯৩ এ পা দেবেন। মুরলী মনোহর জোশীর বয়স  ৮৬, আর এস এস প্রধান মোহন ভাগবতের ৬৯, বিজেপি নেতা ও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিং এর ৮৮, আর এস এস নেতা ভাইয়াজি জোশীর ৭৩ বছর বয়স। তা হলে তো কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের এসওপি মানলে তাদেরও বাড়িতে থাকা উচিত।

রামমন্দিরের ভূমিপুজোর অনুষ্ঠানে যাওয়া উচিত নয়। যদি এসব বয়সের মানুষেরা ভূমি পুজোয় উপস্থিত থাকতে পারে তাহলে অন্য মানুষেরা কেন উপস্থিত থাকতে পারবেন না সনাতন ধর্মের অনেকেই এমনটা প্রশ্ন করছেন তাহলে কি আইন একেকজনের জন্য একেক রকম এমন প্রশ্ন তুলেছেন অনেক সনাতন ধর্মের মানুষেরা। এছাড়াও ভারতের প্রবীণ রাজনীতিবিদ শরদ পাওয়ার ইতোমধ্যেই প্রশ্ন তুলেছেন যে এই করার সময় ভূমি পুজো নিয়ে। যেখানে ভারতীয় স্বাস্থ্যমন্ত্র প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে সবাই ওনার জন্য জোর প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন অথচ এই কথার মধ্যেই এত বেশি মানুষ নিয়ে রাম মন্দিরের ভূমি পুজো করাটা কতটা যৌক্তিক আর স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো ধরনের আরও অনেক প্রশ্ন তুলেছেন ভারতীয় অনেক প্রবীণ ও নবীন রাজনীতিবিদরা।

উল্লেখ্য যে ইতিমধ্যেই করো নাই মারা যাওয়া মানুষের সংখ্যা ইতালিকে পার করে গেছেন ভারত। ভারতে ইতোমধ্যেই মারা গেছে ৩৫ হাজার ৭৪৭ জন মানুষ। আর রাম মন্দিরের এত বড় পুজোর পর প্রতিদিন আরো কত বেশি লোক শনাক্ত হবে তা স্বাস্থ্যমন্ত্র কেন সৃষ্টিকর্তা ছাড়া আর কেউ জানেন না এমনটাই মন্তব্য করছেন ভারতীয় বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের বিজেপির অনেক শীর্ষ নেতৃবৃন্দরা।

এদিকে রাম মন্দিরে পুজো উপলক্ষে করো না সনাক্ত পরীক্ষা করা হচ্ছে ব্যাপকভাবে। কারণ সেখানে উপস্থিত থাকবেন ভারতের শীর্ষস্থানীয় মানুষেরা।
  • 0Blogger Comment
  • Facebook Comment

Post a Comment